রাত ৪:৫২ মঙ্গলবার ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ২৪শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

হোম খেলা নারী কেলেঙ্কারিতে ফেঁসে যাচ্ছেন আর্জেন্টিনার পাভন

নারী কেলেঙ্কারিতে ফেঁসে যাচ্ছেন আর্জেন্টিনার পাভন

লিখেছেন sayeed
Spread the love

আলোচনা-সমালোচনার শেষ নেই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ান পাভনকে নিয়ে। বোকা জুনিয়র্সের হয়ে দারুণ পারফর্ম করা এ ফুটবলার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার ‘গোপন অস্ত্র’ হয়ে উঠবেন বলে দাবি করেছিল ইএসপিএন। অথচ তার বর্তমানটা ভালো যাচ্ছে না। আগামী মৌসুমের ক্লাব পাওয়া নিয়ে দেখা দিয়েছে শঙ্কা।

এমন পরিস্থিতির মধ্যে আরো বড় ধাক্কা খেয়েছেন পাভন। যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে ২৪ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ডের বিরুদ্ধে। অভিযোগকারী সেই নারী বোকা জুনিয়র্স ও ক্রিস্টিয়ান পাভনের এক ভক্ত। নিজের সঙ্গে হওয়া অন্যায়ের বিচার চেয়েছেন তিনি। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পাভন।

ম্যারিসোল ডয়েল নামে ওই নারীর দাবি, কয়েক বছর আগে করদোবায় অবস্থানকালে তাকে যৌন নিপীড়ন করেছেন পাভন। এতদিন চুপ থাকলেও ভেতরে ভেতরে এ ঘটনা কুরে কুরে খাচ্ছিল তাকে। তাই আর চুপ না থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিচার চেয়েছেন। টিএনটি স্পোর্টস সেই পোস্ট দেখে পাভনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির এ অভিযোগ সবার সামনে তুলে ধরে।

ডয়েল তার পোস্টে লিখেছিলেন- এই ব্যক্তি এই ক্লাবে খেলার অধিকার রাখে না। সে যে বাজে কাজ করেছে, এর জবাব দিতে হবে। বিচারের কথায় তাদের কানে কি তালা লেগেছে? এক বছর আগে অনেক সমস্যার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে আমাকে। আমি যে অত্যাচারের মধ্য দিয়ে গিয়েছি, সেটা থেকে সুস্থ হওয়ার চেষ্টা করছি এবং যে ক্লাবের ভক্ত আমি, তাদের কাছে বিচার চাইছি।

তাদের উচিত এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া। আমি আর এমন ভণ্ডামি মেনে নিতে পারছি না। আমি আশা করি এবং বিশ্বাস করি, তারা এমন আচরণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

বোকা জুনিয়র্সের মতো ক্লাবের খেলোয়াড় পাভন। বিশ্বকাপেও খেলেছেন। এমন এক তারকার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলায় তার যে ক্ষতি হতে পারে, এ ভয়ও ছিল ডয়েলের মনে। ধীরে ধীরে নিজের সে অসহায় অবস্থা কাটিয়ে উঠেছেন। এখন বিচারের দাবিতে যেকোনো কিছু করতে প্রস্তুত তিনি।

ডয়েল আরো লিখেছিলেন- সে ঘটনার পর আমি খুব ভয়ে ছিলাম। বদলা নেয়ার ভয়। আমি জানতাম সে অনেক বিখ্যাত খেলোয়াড় এবং আমি আমার শহরে ফেরার সিদ্ধান্ত নিই। যত দিন গেছে, সবকিছু আরো কঠিন হয়েছে। এখন আমি আবার নিজেকে ফিরে পেয়েছি এবং এখন সঠিক বিচারের জন্য যা দরকার, সেগুলো করতে প্রস্তুত আমি।

যৌন হয়রানির অভিযোগ খুব গুরুত্বের সঙ্গেই দেখা হচ্ছে এখন। কিছুদিন আগেই সান্তোসে ফিরেছিলেন রবিনহো। কিন্তু ব্রাজিলিয়ান এ ফুটবলারইতালিতে ধর্ষণের অভিযোগে শাস্তি পাওয়ার ঘটনা জানার পরও এমন সিদ্ধান্তে সমাজকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছিলেন। পরে ক্লাবের আর্থিক দুর্দশার মধ্যেও প্রায় মুফতে রবিনহোকে খেলানোর সুযোগ পেয়েও সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছিল ক্লাবটি। বোকা জুনিয়র্স কিংবা পাভনকে পেতে আগ্রহী এলএ গ্যালাক্সিও এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

পাভন তাই ইনস্টাগ্রামে বেশ বড় এক পোস্ট করেছেন। নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের বিরুদ্ধে দেয়া আইনি জবাবটাই তুলে ধরেছেন। সেখানে লেখা হয়েছে, জনাব পাভনের বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ মিথ্যা। এ কারণে এই মিথ্যা অভিযোগের বিরুদ্ধে এই মামলার কৌঁসুলির কাছে সময়মতো প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More