সন্ধ্যা ৬:৫৫ রবিবার ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ ১৬ই রজব, ১৪৪২ হিজরি

হোম অন্যান্য মানুষ কেনো সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে?

মানুষ কেনো সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে?

লিখেছেন মামুন শেখ
মানুষ কেনো সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে?
Spread the love

মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন, দুই বা তার অধিক অপশন থেকে যখন একটিকে বেছে নিতে বলা হয় তখন যে সমস্যাটি তৈরি হয় সেটি হল সিদ্ধান্তহীনতা বা কনফিউশন। এই সিদ্ধান্তহীনতা কমবেশি সব ধরণের মানুষের মধ্যেই দেখা যায়। কিন্তু কারো কারো ক্ষেত্রে এটি এক ধরণের সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়।

মানুষ কেনো সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে

সিদ্ধান্ত নিতে না পারা বা দুটি কিংবা অনেকগুলো বিকল্পের মধ্যে একটিকে বেছে নিতে না পারার পেছনে অনেক কারণ থাকতে পারে।

তারমধ্যে প্রধান কারণটি হচ্ছে, আত্মবিশ্বাসের অভাব। যার কারণে মানুষ সিদ্ধান্ত নিতে ভয় পায়।

আরেকটি কারণ হচ্ছে, দুটি বিকল্পের মধ্যে কোনটি তার জন্য ভালো সেটি নিশ্চিত হতে পারে না। যার কারণে সে সিদ্ধান্ত নিতে পারে না।

কি কি সমস্যা হয়?

এখন বলা যায়, সিদ্ধান্ত নিতে না পারলে সমস্যাটা আসলে কোথায়?

সিদ্ধান্ত নিতে না পারার কারণে নতুন কোনো পদক্ষেপ তারা নিতে পারে না। অনেকে সিদ্ধান্ত নিতে গেলে অনেক চিন্তা করতে থাকে এবং মানুষকে জিজ্ঞাসা করতে থাকে। একবারে কোনো সিদ্ধান্তই তারা নিতে পারে না। কোনো একটি সিদ্ধান্ত নিলে সেটি পরিবর্তন করে কয়েকদিন পর আবার তারা আরেকটি সিদ্ধান্ত নেয়। কারণ তাদের মনে হয়, আগের সিদ্ধান্তটি ভুল ছিলো। এরা যেহেতু তীব্র মানসিক চাপে ভোগে তাই দেখা যায় তাদের মধ্যে ডিপ্রেশন চলে আসে এবং সিদ্ধান্ত নিতে না পারার কারণে চরম অস্থিরতা কাজ করে।

এ থেকে তাদের মধ্যে অ্যাঙ্গার প্রব্লেম বা হঠাৎ করে রেগে যাওয়ার সমস্যা তৈরি হয়।

সিদ্ধান্ত নিতে না পারায় তার আত্মবিশ্বাসের ওপর আবার প্রভাব ফেলে। আর যদি দেখা যায় যে, সে একটি ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাহলে সেটি তার আত্মবিশ্বাসকে একেবারে শূন্যের কোটায় নামিয়ে দেয়। অর্থাৎ পুরো বিষয়টা একটা চক্রের মতো কাজ করতে থাকে। ফলে কোনো কাজার জন্য যে প্রচেষ্টা, মনোযোগ, পরিশ্রম করা দরকার তার কোনোটাই না করে ওই ব্যক্তির ফোকাস তাকে কাজটা সে করতে পারবে কিনা তার ওপর। ফলে ওই কাজটা সে করতেই পরে না।

এর ফলে তার মধ্যে ভয় কাজ করে এবং এগুলো শরীরকেও প্রভাবিত করে।

দেখা যায় তার হাত-পা কাঁপছে, অস্থির লাগছে, হৃৎস্পন্দন বেড়ে যাচ্ছে, হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে আসছে, শরীর কাঁপছে, ঘাম হচ্ছে, গলা শুকিয়ে আসছে- এ ধরনের নানা উপসর্গ।

এ কারণে তার আচরণেও নানা সমস্যা দেখা দেয়।

কীভাবে সারিয়ে তোলা যায়?

এখন দেখা যাক, এই ধরণের সমস্যায় ভুগরে বা সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগরে কীভাবে তা সারিয়ে তোলা যায়।

১ সহজে মেনে নেয়া।

প্রথমেই যেটি করতে হবে, সবকিছু সহজভাবে মেনে নিতে হবে।

যেকোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিলে সেটা অনেক সময় ভুল প্রমাণিত হতেই পারে। তাই বলে ভুল কেনো হলো সেটা ভেবে আত্মবিশ্বাস হারানো চলবে না।

যেকোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে যে, সিদ্ধান্তটি ভুল হতেই পারে।

২. সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে ভেবে দেখুন এবং প্রস্তুতি নিন।

কোনো একটা সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় সেটি সফল হলে কি কি ইতিবাচক বিষয় ঘটতে পারে এবং কি কি নেতিবাচক ঘটনা ঘটতে পারে সেটি ভাবুন। তারপর নেতিবাচক বিষয়গুলো সামাল দেয়ার সক্ষমতা আছে কিনা সেটি ভেবে দেখতে হবে এবং সে অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

নেতিবাচক দিকগুলো নিয়ে আগে থেকে প্রস্তুতি থাকলে পরবর্তীতে কঠিন পরিস্থিতি সামাল দেয়া সহজ হয়।

আরও পড়ুন:

যেসব লক্ষণে বুঝবেন আপনি প্রেমে পড়েছেন

জীবনের লক্ষ্য নষ্ট হয় যেসব ভুলের কারণে

বিয়ের আগে যে চারটি শারীরিক পরীক্ষা অবশ্যই করবেন

৩. নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করবেন না।

অনেক সময় মনে হতে পারে, অন্য কেউ হয়তো কোন একটি কাজ পারছি কিন্তু আপনি কেনো পারছেন না।

আবার পরিবারের সদস্যরাও অনেক সময় আমাদেরকে অন্য সফল মানুষদের সাথে তুলনা করে।

এ বিষয়গুলো মানুষের মধ্যে আত্মবিশ্বাস কমিয়ে দেয়। ফলে তার সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে সমস্যার তৈরি হয়। এক ধরনের দ্বিধা বা ভয় কাজ করে। তাই অন্যের সাথে তুলনা আজই বন্ধ করুন।

৪. নিজের প্রশংসা করুন।

জীবনে কি ইতিবাচক কিছুই করেননি। অবশ্যই করেছেন। সেটা যতো ছোটই হোক সেই ছোট বিষয়গুলো নিয়ে নিজের প্রশংসা করুন।

দেখবেন আত্মবিশ্বাস ফিরে আসছে। আপনার সিদ্ধান্ত নেয়াও তখন অনেক বেশি সহজ হবে।

৫. শিশুর প্রতি নজর দিন।

মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন, যেসব শিশু অনেক আদরে বড় হয় এবং তাদের সব বিষয়ে সিদ্ধান্ত বাবা-মা নিয়ে দেয় তাদের ক্ষেত্রে বড় হলেও নির্ভরতার প্রবণতা থেকেই যায়।

ফলে বড় হলেও যখন তাদের কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার দরকার পড়ে তখন আর তারা সেটি নিতে পারে না।

সেক্ষেত্রে যেটি করতে হবে তা হল- শিশুদেরকে ছোটবেলা থেকেই ছোট ছোট সিদ্ধান্ত নেয়ার সুযোগ দিতে হবে। যাতে করে তার মধ্যে আত্মবিশ্বাস গড়ে উঠে। যেমন- তার কাছে জিজ্ঞাসা করা যেতে পারে, সকালের নাস্তায় সে কি খেতে চায়, ডিম ভাজি নাকি ডিম পোজ; এ ধরনের অভ্যাস তার সিদ্ধান্ত গ্রহণের মানসিকতা তৈরি করে।

মানুষ কেনো সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে

আরও পড়ুন:

ব্রেকআপ থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর পাঁচ ধাপ

যে ৭টি কারণে আয়ু কমে যায়

যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে যেসব খাবার খাওয়া উচিত

অতিরিক্ত পর্ণ দেখছেন? মুহুর্তেই হতে পারে আপনার…

স্ট্রোকের পূর্বাভাস বুঝবেন যেভাব

মানসিক চাপ যেভাবে যৌনজীবনে প্রভাব ফেলে!

যেসব ভুল আপনার সঙ্গীকে পরকীয়ার দিকে ঠেলে দিচ্ছে!

এই ৭ ধরনের ক্যান্সার প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়ে না

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More