দুপুর ১:৪২ রবিবার ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ২২শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

হোম দেশ যথাযোগ্য মর্যাদায় সারাদেশে বিজয় উৎসব

যথাযোগ্য মর্যাদায় সারাদেশে বিজয় উৎসব

লিখেছেন sayeed
Spread the love

আজ ১৬ ডিসেম্বর, মহান বিজয় দিবস। একাত্তরের এই দিনে পাকবাহিনীর আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে রচিত হয় বাঙালির বিজয় গাথা। ৩০ লাখ শহিদের রক্তস্রোতে ভেসে সাত কোটির জনপদে আসে স্বাধীনতা। বিজয় উল্লাস ধ্বনিত হয় আকাশে-বাতাসে। সেই বিজয়ের উত্তাপে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহিদদের স্মরণের পাশাপাশি আনন্দে মেতেছে সারাদেশ।

ঢাকা:
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে সর্বস্তরের জনতার ঢল নেমেছে। স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন তারা। বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল ৬টা ৩৮ মিনিটে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে থেকে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এরপর একে একে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

যশোর:
বিজয়স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও নানান অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যশোরে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। সকাল সাড়ে ছয়টায় শহরের মণিহার এলাকায় বিজয়স্তম্ভে ফুল দেওয়ার মাধ্যমে স্বাধীনতাযুদ্ধে শহিদদের শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে যশোরবাসী। জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক দলসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের ঢল নামে বিজয়স্তম্ভে। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে হাসপাতাল, কেন্দ্রীয় কারাগার, কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র, বৃদ্ধাশ্রম ও এতিমখানায় উন্নতমানের খাবার দেওয়া হয়।

নড়াইল:
করোনা ভাইরাসের প্রকোপের মুখে জেলায় সীমিত আকারে উদযাপন করা হয় মহান বিজয় দিবস। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের কর্মসূচীর সূচনা হয়। পরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ, বধ্যভূমি, গণকবর, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুস্পমাল্য অর্পণ, গণকবর জিয়ারত ও মোনাজাত এবং বঙ্গবন্ধু মঞ্চে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত আকারে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

গাজীপুর:
যথাযোগ্য মর্যাদায় গাজীপুরে বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়। সূর্যোদয়ের মুহূর্তে তপোধ্বনির মধ্য দিয়ে দিনের কাযর্ক্রম শুরু হয়। পরে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভে জেলা প্রশাসন, জেলা পরিষদ, জেলা পুলিশ ও জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা সদর ও উপজেলা সদরের মসজিদে মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ:
সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে ৩১ বার তপোধ্বনি ও বিজয়স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে বিজয় দিবসের শুভ সূচনা করা হয় নারায়ণগঞ্জে। ভোরে চাষাঢ়া বিজয় স্তম্ভে জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন ও পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম শ্রদ্ধা জানান।
এরপর মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন সরকারি অফিস, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং সর্বস্তরের মানুষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এর আগে শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে মিছিল নিয়ে চাষাঢ়া বিজয়স্তম্ভে জড়ো হন নারায়ণগঞ্জবাসী।

নরসিংদী:
মোসলেহ উদ্দিন ভূইয়া স্টেডিয়ামে তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের শুভ সূচনা করা হয়। সকালে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানায় জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন। সকাল আটটায় সীমিত উপস্থিতিতে সার্কিট হাউজে জেলা প্রশাসক কর্তৃক আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং প্যারেড ও কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করা হয়।

বরিশাল:
শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদানসহ নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে বরিশালে উদযাপিত হচ্ছে মহান বিজয় দিবস। সকাল সাড়ে ছয়টায় থেকে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন প্রশাসন, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এখানে বিভাগীয় কমিশনার অমিতাভ সরকার, রেঞ্জ ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমানসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন। এ সময় সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।

বাগেরহাট:
নানান কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে জেলায় মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। তপোধ্বনির পর সকাল সাতটায় শহরের দশানী স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা আওয়ামী লীগ, সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। পরে শহিদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে গার্ড অব অনার প্রদান, এক মিনিট নীরবতা পালন ও শহিদের রুহের মাগফেরত কামনা করে দোয়া করা হয়। এ সময় বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ, পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়, বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাড. ভূইয়া হেমায়েত উদ্দিন, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক সরদার নাসির উদ্দিন ও ছাত্রলীগের সভাপতি মনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।

সুনামগঞ্জ:
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছে জেলা প্রশাসন। সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ ও পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বিপিএম। এ সময়, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তর ও সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকবৃন্দ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

পঞ্চগড়:
যথাযথ মর্যাদায় নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে পঞ্চগড়ে মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে পঞ্চগড় ডিসি অফিস সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটি শুরু হয়। পরে শহিদদের স্মরণে শহিদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলক ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। এ সময় শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন পঞ্চগড় ১ আসনের সংসদ সদস্য মজাহারুল হক প্রধান, জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত সম্রাট প্রমুখ।

সাতক্ষীরা:
বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সাতক্ষীরায় পালিত হলো মহান বিজয় দিবস। এ উপলক্ষে শহরের শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে বুধবার প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির শুভ সূচনা করা হয়। এরপর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে বুধবার সকাল সাড়ে আটটায় শহরের খুলনা রোড় মোড়ে বঙ্গবন্ধুর মোরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে সার্কিট হাউজ চত্বরে গার্ড অব অনার ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানসহ প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা।

দিনাজপুর:
দিবসটি উপলক্ষ্যে সকালে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে মুক্তিযোদ্ধা শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেনসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

পরে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর প্রেসক্লাব, দিনাজপুর সাংবাদিক ইউনিয়ন, আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক দল, সাহিত্য-সাংস্কৃতিক সংগঠন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে আলোচনাসভা, মুক্তিযোদ্ধা সংবর্ধনা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানান কর্মসূচির মধ্যদিয়ে বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে।

টাঙ্গাইল:
টাঙ্গাইলে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হচ্ছে।বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সরকারি বেসরকারি এবং মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। একই সাথে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্ত্বরে ৩১ বার তোপধ্বনি, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পস্তবক অর্পণ, শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে স্মৃতিসৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ ও শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়েছে।

সকল মসজিদে বাদ জোহর ও মন্দির অন্যান্য ধর্মীর উপসনালয়ে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা, জেলখানা, হাসপাতাল শিশু পরিবার এবং নারী পুর্ণবাসন কেন্দ্রে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন। অপর দিকে ভোর ৬ টা থেকে সারাদিন প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শণ, জেলার প্রধান প্রধান সড়কে দ্বীপ সমুহ জাতীয় পতাকাসহ বিভিন্ন পতাকা দ্বারা সজ্জিতকরণ, সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটায় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More