রাত ১১:১৪ সোমবার ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ ৫ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

হোম খেলা ম্যারডোনাকে মেসির অন্যরকম শ্রদ্ধা

ম্যারডোনাকে মেসির অন্যরকম শ্রদ্ধা

লিখেছেন sayeed
Spread the love

স্প্যানিশ লা লিগায় ওসাসুনার বিপক্ষে বার্সেলোনার নিয়মিত জার্সির নিচে লিওনেল মেসি পরেছিলেন আরেকটি জার্সি। ম্যাচের ৭৩তম মিনিটে এল বিশেষ মুহূর্তটি। দুর্দান্ত এক শটে গোল আদায় করলেন মেসি।

পরক্ষণেই বার্সার জার্সি খুলে ফেলতেই বেরিয়ে এলো লাল-কালো জার্সিটি। দুই হাত শূন্যে তুলে কিছু একটা বললেন বার্সা কাপ্তান। ফুটবল লিজেন্ড দিয়েগো ম্যারাডোনার প্রতি এভাবে শ্রদ্ধা জানালেন লিও।

খুদে বয়সে মেসির ফুটবলে যাত্রা শুরু আর্জেন্টিনার নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজ ক্লাবেই। ক্যারিয়ারে বল পায়ে ম্যারাডোনা মাঠ মাতিয়েছেন নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজ ক্লাবের জার্সি গায়েও।

রোববার মেসির গায়ে ছিল ম্যারাডোনার নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজের ১০ নম্বর জার্সি। ম্যারাডোনাকে সম্মান জানাতে নিওয়েলসের জার্সিই কেন পরেছেন মেসি?

সেটির ব্যাখ্যা জানিয়েছে স্প্যানিশ দৈনিক মার্কা। ২০১৩ সালে আর্জেন্টাইন দৈনিক টিওয়াইসি স্পোর্টসে মেসির এক সাক্ষাৎকারে লুকিয়ে প্রশ্নটার উত্তর।

সাত বছর আগে টিওয়াইসি স্পোর্টসে প্রকাশিত সাক্ষাৎকারে মেসি জানিয়েছিলেন, নিওয়েলসে ম্যারাডোনার প্রথম ম্যাচের দিন বাবার সঙ্গে গ্যালারিতে গিয়েছিলেন মেসি!

১৯৯৩ সালের ৭ অক্টোবর, বার্সেলোনা, নাপোলি আর সেভিয়ার হয়ে ইউরোপ অধ্যায় শেষ করে নিওয়েলসের জার্সি গায়েই আবার আর্জেন্টিনায় ফিরেছেন ম্যারাডোনা।

এমেলেকের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ দিয়ে সেদিন নিওয়েলসের জার্সিতে অভিষেক ছিয়াশি বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির। গ্যালারিতে অন্য সবার সঙ্গে সেদিন শিহরিত ছিলেন ছয় বছরের মেসিও।

লিওনেল মেসি বলেন, ‘খুব বেশি কিছু মনে নেই আমার, খুব ছোট ছিলাম তখন। তবে এমেলেকের বিপক্ষে তার অভিষেকের দিন মাঠে ম্যারাডোনাকে খেলতে দেখেছিলাম আমি।’

দুই মেয়ে দালমা ও জিয়ান্নিনার হাত ধরে সেদিন নিওয়েলসের জার্সি গায়ে প্রথমবার মাঠে নেমেছিলেন ম্যারাডোনা। গ্যালারিতে তখন ‘মারাদোওওওওওও…’ ‘মারাদোওওওওওওও…’ চিৎকারে কান পাতা দায়।

ম্যাচটা সেদিন নিওয়েলস জিতেছিল ১-০ গোলে, ৬৭ মিনিটে ম্যাচের একমাত্র গোলটা ম্যারাডোনারই। গোলের ঢংয়েও দুজনের আশ্চর্য মিল!

ওসাসুনার বিপক্ষে রোববার ম্যাচের ৭৩ মিনিটে মেসি বক্সের বাইরে থেকে গোলটা করেছিলেন বার্সার হয়ে, সেদিন নিওয়েলসের হয়ে ম্যারাডোনার গোলটাও ছিল বক্সের বাইরে থেকে শটেই।

দুজনই গোলটা করেছেন কয়েকজন ডিফেন্ডারকে এড়ানো দৌড়ের পর।ম্যারাডোনা ১০ নম্বর জার্সিই পরতেন নিওয়েলসে, ওসাসুনার বিপক্ষে ম্যাচে বার্সার জার্সির নিচে নিওয়েলসের ১০ নম্বর জার্সি পরে নামেন মেসি।

সেদিন ম্যারাডোনা যেরকম জার্সি পরেছিলেন, ঠিক সেরকম জার্সি। গোল পাওয়ার পর বার্সার জার্সিটা খুলে রাখলেন মেসি, তার গায়ে নিওয়েলসের ১০ নম্বর জার্সি।

প্রার্থনার মতো ভঙ্গিতে দুহাত ওপরে তুললেন, নিওয়েলসের জার্সিতে ম্যারাডোনাও এভাবে গোল উদ্যাপন করেছিলেন। ওই সময়ের স্মৃতিটাই মেসির মনে গেঁথে আছে।

 

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More