সকাল ১০:২৮ শনিবার ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৫ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

হোম বিদেশ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ফের যৌন হেনস্থার অভিযোগ!

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ফের যৌন হেনস্থার অভিযোগ!

লিখেছেন sayeed
Spread the love

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ নতুন নয়। এর আগেও একগুচ্ছ অভিযোগ এসেছিল। সম্প্রতি দেশটির নির্বাচনের প্রচারণার মাঝেই বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোলান্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এবার যৌন হেনস্থার অভিযোগ করলেন সাবেক মডেল অ্যামি ডরিস। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প

যুক্তরাজ্যের সংবাদপত্র দ্য গার্ডিয়ানকে সাক্ষাৎকারে অ্যামি ডরিস বলেছেন, ১৯৯৭ সালে নিউ ইয়র্কে ইউএস ওপেন টেনিস চ্যাম্পিয়ানশিপ চলার সময় ভিআইপি বক্সে ট্রাম্প আমাকে জোর করে চুম্বন করেন। ট্রাম্প আমায় চেপে ধরেন। তারপর জোর করে তার জিভ আমার মুখের ভিতরে ঢুকিয়ে দেন।

ডরিস আরও বলেন, ট্রাম্প এত জোরে চেপে ধরেছিলেন যে আমি ছাড়াতে পারছিলাম না। তার হাত আমার স্তন, পশ্চাৎদেশ সহ শরীরের সব জায়গা স্পর্শ করছিল। আমি বারবার তাকে থামতে বলেছিলাম, কিন্তু তিনি থামেননি। আমি সে সময় অনেককে এই ঘটনার কথা বলেছিলাম। তাদেরকে জিজ্ঞাসা করে দেখতে পারেন।

যখন এই ঘটনা ঘটেছিল, তখন তার বয়স ছিল ২৪ বছর। ট্রাম্পের ৫১। তিনি তখন দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন। ডরিস এই সাক্ষাৎকার গার্ডিয়ানকে দিয়েছিলেন এক বছর আগে। তার অনুরোধ ছিল, তখন তা যেন ছাপা না হয়। তিনি বলেছেন, ট্রাম্প এই কাজ করার পরেও ছাড়া পেয়ে গেছেন দেখে আমার খুব খারাপ লাগে।

এ ব্যপারে ট্রাম্পের আইনজীবী গার্ডিয়ানকে জানিয়েছেন, ডরিস যা বলছেন তা একেবারেই বিশ্বাসযোগ্য নয়। এরকম ঘটনা ঘটলে তার তো সাক্ষী থাকবে। আগামী ৩ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তার আগে এই ধরনের অভিযোগ পুরোপুরি রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

এর আগেও আমেরিকার কলামনিস্ট ই ক্যারল অভিযোগ করেছিলেন, ট্রাম্প তাকে একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের ট্রায়াল রুমে ধর্ষণ করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, তার খ্যাতি এতটাই বেশি যে, চাইলে যে কোনো মেয়েকে ধরে তার যৌনাঙ্গে হাত দিতে পারেন। ট্রাম্প প্রথমে এটাকে ‘লকার রুম ব্যান্টার’ বলে উড়িয়ে দিয়েও পরে ক্ষমা চেয়েছিলেন।

এখন প্রশ্ন হলো, ডরিস এতদিন পরে কেন এই অভিযোগ করলেন? তার বক্তব্য, ”এই ধরনের ঘটনা কারো সঙ্গে ঘটলে সে তখন আতঙ্কে স্তব্ধ হয়ে যায়। আমিও হয়েছিলাম। এখন আমার দুই মেয়ের কাছে রোল মডেল হতে চাই। তাই বলছি। সুত্র- ডয়চে ভেলে

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More