দুপুর ১:২০ শুক্রবার ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৪ঠা রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

হোম দেশ সাগরে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে রুপালি ইলিশ

সাগরে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে রুপালি ইলিশ

লিখেছেন kajol khan
elish_durantobd
Spread the love

 

করোনা ও ৬৫ দিনের সমুদ্রে মৎস্য অবরোধ শেষে সাগরে মাছ ধরা শুরু করেছেন জেলেরা। কিছুদিন আগেও জেলেদের মুখে ছিল নিরব কান্না কিন্তু সেসব অতিক্রম করে তারা এখন সাগরে জাল ফেলে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরছে ইলিশ । তাঁদের চোখে-মুখে ফুটে উঠেছে হাসি। ট্রলার ভর্তি ইলিশ নিয়ে ঘাটে ফিরে ভালো দামেই বিক্রি করছেন। দীর্ঘদিন পর সংকট কাটিয়ে উঠায় আনান্দিত তারা।

বরিশালে বর্তমানে মিলছে বিভিন্ন আকারের ইলিশ। দাম কম হওয়ায় ক্রেতারাও ইচ্ছামতো কিনছে। অবশ্য সাগরের ইলিশে স্বাদ কম হওয়ায় অনেকেই সন্তুষ্ট নয়।

ব্যবসায়ীরা জানান, চলতি বছর ইলিশের সরবরাহ গত বছরের চেয়ে কোনো অংশেই কম নয়। তবে এবার নদীর ইলিশ কম। সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের কীর্তনখোলাপারের জেলে জসীম উদ্দীন জানান, সাধারণত আষাঢ়-শ্রাবণ মাসে ভোলার তেঁতুলিয়া কীর্তন খোলা নদীতে ইলিশ বেশি ধরা পড়ে। তবে এবার এই সময়ে নদীতে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়েনি। গত শনিবার প্রায় চার হাজার মণ ইলিশ এসেছে মোকামে। এর মধ্যে বেশির ভাগ সমুদ্রের ইলিশ। স্থানীয় চাহিদা মোটানোর পর উদ্বৃত্ত ইলিশ সংরক্ষণের ব্যবস্থা নেই বরিশালে। এ কারণে দরপতন হয়েছে।

আড়তদার ইয়ার উদ্দিন জানান, দেড় কেজি ওজনের প্রতি মণ ইলিশ ৩৬ হাজার টাকা, এক কেজি ২০০ গ্রামের প্রতি মণ ৩০ হাজার টাকা, এক কেজি ওজনের প্রতি মণ ২৭ হাজার টাকা। রপ্তানি-যোগ্য এলসি সাইজ ২০ হাজার টাকা। ভেলকা (৪০০ থেকে ৫০০ গ্রাম) প্রতি মণ ১৫ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। এর আগে এত কম দামে ইলিশ বিক্রি হয়নি।

স্থানীয় ব্যবসায়ী আবুল কালাম বলেন, ‘দেড় কেজি ওজনের ইলিশ কেজি ৭৫০ থেকে ৭৭৫ টাকা। আর প্রতি মণ বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩২ হাজার টাকায়। ৮০০ গ্রাম থেকে এক কেজি ওজনের ইলিশ কেজি ৫৫০ টাকা। প্রতি মণ বিক্রি হচ্ছে ২২ হাজার টাকায়। ছোট আকারের ইলিশ কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪২৫ থেকে ৪৫০ টাকা। মণ ১৭ হাজার টাকা।’

সীতাকুণ্ডের (চট্টগ্রাম) সলিমপুর থেকে বারৈয়াঢালা পর্যন্ত এলাকায় ১৩৮টি জেলেপাড়া আছে। এসব জেলে পল্লীতে প্রায় পাঁচ হাজার মৎস্যজীবীর বাস। এসব জেলেরা বছরজুড়ে সাগরে মাছ ধরলেও অপেক্ষায় থাকে ইলিশ মৌসুমের জন্য।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শামীম আহমদ বলেন, ‘সীতাকুণ্ডের ১৩৮টি জেলেপাড়ায় চার হাজার ৮০০ নিবন্ধিত জেলে আছেন। তাঁরা সাগর থেকে ইলিশ সংগ্রহ করে সারা দেশে রপ্তানি করেন। এবার আমরা আট হাজার মেট্রিক টন ইলিশ সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি। ইতিমধ্যে ছয় হাজার মেট্রিক টনের মতো মাছ সংগ্রহ করা হয়েছে। বাকিটাও সংগ্রহ করা হবে।’

জেলেরা জানান, এবার সাগরে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে তাঁদের জালে। বর্তমানে স্থানীয় বাজারে এক কেজি বা তার চেয়ে বেশি ওজনের ইলিশ প্রতি কেজি ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা, ৪০০ থেকে ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ প্রতি কেজি ৩০০ থেকে ৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু এ মূল্যে সন্তুষ্ট নন জেলেরা।

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More