রাত ১:৫৬ রবিবার ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৯ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

হোম দুরন্ত-চুয়াডাঙ্গা জীবননগরে ভুয়া এনজিও ১ কোটি টাকা নিয়ে পলাতক (ভিডিও)

জীবননগরে ভুয়া এনজিও ১ কোটি টাকা নিয়ে পলাতক (ভিডিও)

লিখেছেন kajol khan
ngo_durantobd
Spread the love

মিঠুন মাহমুদ :চুয়াডাঙ্গা (জীবননগর) প্রতিনিধি

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে হতদরিদ্র মানুষের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় ১ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে মানব কল্যাণ সংস্থা নামের একটি ভুয়া এনজিও।

এনজিওটি প্রথমে কৌশলে সদস্য সংগ্রহ করে ভর্তি করে। পরে লোন দেওয়ার জন্য সঞ্চয় হিসাবে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। বেশ কয়েক দিন আগে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর আঁশতলাপাড়ায় একটি ভাড়া বাড়িতে এনজিওর কার্যক্রম শুরু করে।

ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকার বাবর রোডের মানব কল্যাণ সংস্থা নামের একটি ভুয়া এনজিও চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার আাঁশতলাপাড়ায় একটি শাখা অফিস খোলে আগস্ট মাসের শুরুর দিকে।

এনজিও কর্মীরা উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রাম গুলো বেছে নেয়। তারা হতদরিদ্র পরিবারের নারী সদস্যদের বুঝিয়ে সমিতি সৃষ্টির নামে সদস্য সংগ্রহ করে ভর্তি বাবদ আড়াইশ টাকা করে নিয়ে সঞ্চয় আমানতের বই দেয়। ঋণ দেওয়ার নাম করে প্রত্যেক সদস্যর কাছ থেকে সঞ্চয় বাবদ ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা নেয়।

এনজিও কর্মীরা ২০ আগস্ট ঋণের টাকা নেওয়ার জন্য সদস্যদের জীবননগর শাখা অফিসে আসতে বলে। সদস্যরা এনজিও কার্য্যলয়ে এসে দেখে তালা ঝুলছে। অল্প দিনে এই চক্রটি উপজেলার বাঁকা, মিনাজপুর, সুটিয়া,বকুন্ডিয়া, রাজাপুর, মানিকপুর, গোয়ালপাড়া, সদরপাড়া, হরিপুর, হাবিবপুরসহ বিভিন্ন গ্রামে সমিতির কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

গরিব মানুষের জন্য আমরা একটি সমিতি খুলেছি। ৫ হাজার টাকা সঞ্চয় করলে ৫০ হাজার টাকা ঋণ দেব বলে। আমরা ধার দিনা করে তাদের টাকা দিয়েছি। টাকা তুলতে গিয়ে দেখি অফিস বন্ধ।

জীবননগর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, মানব কল্যাণ সংস্থার বিরুদ্ধে প্রতারণার দুটি অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সীমান্ত ইউনিয়ন পরিষদের চয়ারম্যান মঈন উদ্দিন মঈন বলেন, একটি ভুয়া এনজিও মানুষকে লোভ দেখিয়ে অর্থ আদায় করেছে। গ্রামের মানুষ গুলো ধার-দেনা ও জিনিসপত্র বিক্রি করে টাকা দিয়েছে।

উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা বলেন, এ এনজিওর কার্যক্রম বৈধ নয়। কেউ অভিযোগ করলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More