রাত ১০:৩১ শনিবার ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৯ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

হোম বিদেশ আবারও সুখবর দিল অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন

আবারও সুখবর দিল অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন

লিখেছেন dipok dip
Spread the love

বিশ্বজুড়ে চলমান করোনা সংক্রমণে এই ভাইরাস মোকাবেলায় ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে অন্যদের চেয়ে এগিয়ে থাকা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই ভ্যাকসিনের বৃহৎ পরিসরে মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে। সূত্র : রয়টার্স।

ব্রিটেনের সবচেয়ে দামি এই কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্যাসকেল সোরিওট বলেন, ভ্যাকসিন তৈরির কাজ ভালোভাবেই চলছে। এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে ভালো ডেটা এসেছে। আমাদের ক্লিনিক্যাল প্রোগ্রামে কার্যকারিতা দেখাতে হবে। এখন পর্যন্ত সবকিছু ঠিক আছে। উল্লেখ্য, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য ভ্যাকসিন চ্যাডক্স১ এনকোভ-১৯ তৈরি করছে ব্রিটিশ এই কোম্পানি। এরই মধ্যে ভ্যাকসিনটির ২০০ কোটিরও বেশি ডোজ উৎপাদনের জন্য বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে চুক্তিতে পৌঁছেছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা। ব্রিটিশ এই কোম্পানি বলছে, চলতি বছরের শেষ দিকে ভ্যাকসিনটি চূড়ান্ত অনুমোদন পেতে পারে।

বাঁদরে সফল মডার্না : মডার্না গত সোমবার জানিয়ে দিয়েছিল, এ বছরের শেষেই হাতে চলে আসতে পারে তাদের তৈরি করোনার টিকা।
৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর ওপর পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হতে চলেছে টিকাটির। তার আগে ১৬টি বাঁদরের ওপর প্রয়োগ করা হয়েছিল টিকা। তাতে সাড়া মিলেছে। গত মঙ্গলবার নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে এই মার্কিন সংস্থা। সেখানে দাবি করেছে, তাদের তৈরি টিকার দু?টি ইনজেকশন করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে সাহায্য করবে। ১৬টি বাঁদরকে এই টিকা দেওয়া হয়। তার পর তাদের শরীরে ভাইরাস প্রবেশ করিয়েও দেখা গেছে নাকে কোনো সংক্রমণ হচ্ছে না।

সাত থেকে আটটি বাঁদরের ফুসফুসেও সংক্রমণ হয়নি। ১৬টি বাঁদরের মধ্যেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কিছুটা হলেও জন্মেছে। এর পরেই টিকার তৃতীয় পর্যায়ের প্রয়োগ শুরু করেছে মডার্না সংস্থা। নভেম্বর-ডিসেম্বর নাগাদ এই পরীক্ষার ফলাফলের নথি প্রকাশিত হবে।

 

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More