বিকাল ৪:৫৮ বৃহস্পতিবার ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৭ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

হোম বিদেশ ঐতিহাসিক হাইয়া সোফিয়ায় ৮৬ বছর পর নামাজ অনুষ্ঠিত

ঐতিহাসিক হাইয়া সোফিয়ায় ৮৬ বছর পর নামাজ অনুষ্ঠিত

লিখেছেন dipok dip
Spread the love

অবশেষে ৮৬ বছর পর ঐতিহাসিক হাইয়া সোফিয়ায় প্রথমবারের মতো নামাজ আদায় করেছে মুসল্লিরা। চলতি মাসের শুরুর দিকে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের ঐতিহাসিক এই স্থাপনাকে মসজিদে রূপান্তর করার পর আজ শুক্রবার সেখানে জুম’আর নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। খবর আল জাজিরার।

আধুনিক তুরস্কের প্রতিষ্ঠাতা কামাল আতাতুর্ক ১৯৩০-র দশকে ১৫০০ বছর পুরনো এই স্থাপনাকে জাদুঘরে রূপান্তর করেন। কিন্তু তুরস্কের একটি শীর্ষ আদালত ওই সিদ্ধান্তকে অবৈধ বলে ঘোষণা করেন। এরপর প্রায় দুই সপ্তাহ আগে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রেচেপ তায়েপ এরদোয়ান এটিকে মসজিদে রূপান্তরের ডিক্রি জারি করেন।

শুক্রবারের এই নামাজকে ঘিরে হাইয়া সোফিয়ার বাইরে শত শত মানুষ জড়ো হয়। এরদোয়ান ও তার মন্ত্রিসভার সদস্য এবং অন্যান্য শীর্ষ কর্মকর্তারা হাইয়া সোফিয়ার ভেতরে শত শত মানুষের সঙ্গে নামাজ আদায় করেন।

বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্যের অধিপতি সম্রাট প্রথম জাস্টিনিয়ানের নির্দেশে ষষ্ঠ শতাব্দীতে হাইয়া সোফিয়া নির্মিত হয়। ওই সময় এটিই ছিল পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গির্জা। এরপর ১৪৫৩ সালে ইস্তাম্বুল ওসমানী খেলাফতের দখলে গেলে একে মসজিদে পরিণত করেন সুলতান মাহমুদ ফাতিহ।

অটোমান সামাজ্র্যের পর তুর্কি প্রজাতন্ত্রের আধুনিক প্রতিষ্ঠাতা মুস্তফা কামাল আতাতুর্ক এটিকে জাদুঘরে পরিণত করেন। এটি এখন ইউনেস্কো ঘোষিত একটি বিশ্ব ঐতিহ্য স্থান। তবে হাইয়া সোফিয়াকে জাদুঘরে রূপান্তর করা একটি ‘বড় ভুল ছিল’ বলে গত বছর মন্তব্য করেন এরদোয়ান।

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More