রাত ২:১২ বৃহস্পতিবার ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ১৩ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

হোম দেশ ১৩০ টাকায় নেমেছে ব্রয়লার মুরগি

১৩০ টাকায় নেমেছে ব্রয়লার মুরগি

লিখেছেন sayeed
Spread the love

দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকেই পোল্ট্রি মুরগির দামে অস্থিরতা বিরাজ করছে। চাহিদা বাড়লে হুট ক্রেই দাম বেড়ে যাচ্ছে। আবার চাহিদা কমলে দাম কমে যাচ্ছে। চাহিদা কমায় রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজি প্রতি ১৩০ টাকায় নেমে এসেছে।

কিছুদিন আগেও বিভিন্ন বাজারে ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৭০ টাকায় বিক্রি হয়। অবশ্য দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরুর আগে ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৩০ টাকাই ছিল।

দাম কমা প্রসঙ্গে ব্রয়লার মুরগি ব্যবসায়ীরা জানান, দেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ শুরু হওয়ার আগে রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছিল ১২০ থেকে ১৩০ টাকার মধ্যে। কিন্তু করোনা প্রকোপের শুরুতে ব্রয়লার মুরগি বিক্রি বেশ কমে যায়। ফলে কেজি ১০০ থেকে ১১০ টাকায় নেমে আসে।

দফায় দফায় দাম বেড়ে রোজার ঈদের আগে ব্রয়লার মুরগির কেজি ২০০ টাকা স্পর্শ করে। ঈদের পর আবার দাম কমে। জুনের শুরুর দিকে ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৩০ টাকায় নেমে আসে। অবশ্য এ দাম খুব বেশি দিন স্থির হয়নি। ঢাকায় মানুষের যাতায়াত বাড়ায় আবার ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৫০ থেকে ১৭০ টাকার ওঠে।

ব্রয়লার মুরগির দাম কমার বাপারে বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাস্ট্রিস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মনজুর মোরশেদ খান বলেন, বাজারে এখন ব্রয়লার মুরগির সরবরাহ বেড়েছে। বিপরীতে চাহিদা কিছুটা কমেছে। যার ফলে কারণে দামও কমেছে।

ব্যবসায়ী মিলন বলেন, কিছুদিন আগেও আমরা ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৫০ টাকায় বিক্রি করেছি। কয়েকদিন ধরে পাইকারিতে দাম কমেছে। এ কারণে এখন ১৩৫ টাকা কেজি বিক্রি করতে পারছি।

মোহাম্মদপুর বাজারের ক্রেতা কাজল হোসেন বলেন, ক’দিন আগেও ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৫০ টাকা দিয়ে কিনেছি। আজ (বৃহস্পতিবার) তা ১৩৫ টাকা নিয়েছে। পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে ঈদের আগে ব্রয়লার মুরগির দাম আর বাড়বে না।

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More