সন্ধ্যা ৭:৪৫ রবিবার ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৯ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

হোম দেশ জেকেজি’র চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনাকে রিমান্ডে নেবে পুলিশ

জেকেজি’র চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনাকে রিমান্ডে নেবে পুলিশ

লিখেছেন sayeed
Spread the love

প্রানঘাতী করোনাভাইরাস পরীক্ষার টেস্ট না করেই ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে গ্রেফতার করেছে তেজগাঁও থানা পুলিশ। সোমবার (১৩ জুলাই) তাকে আদালতে তুলে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ রিমান্ড আবেদন করবে।

রোবাবার (১২ জুলাই) তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) হারুন অর রশিদ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে দুপুরে তাকে তেজগাঁও ডিসি কার্যালয়ে ডেকে এনে জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার দেখানো হয়।

ডিসি মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ বলেন, ডাক্তার সাবরিনাকে জিজ্ঞাসাবাদে যেসব প্রশ্ন করা হয়েছে তিনি সেগুলোর সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি। তাই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার তদন্তের জন্য তাকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদ করতে হবে। আগামীকাল সোমবার তাকে আদালতে পাঠিয়ে রিমান্ড চাইবে পুলিশ।

করোনা পরীক্ষা ছাড়াই ভুয়া রিপোর্ট দিয়ে গ্রেফতার হওয়া জেকেজি হেলথ কেয়ারের সিইও আরিফ চৌধুরীর প্রতারণার নেপথ্যে ছিলেন তার স্ত্রী ডা. সাবরিনা। তাদের এক ল্যাপটপেই পাওয়া গেছে ১৫ হাজারেরও বেশি করোনার ভুয়া টেস্ট রিপোর্ট। এর আগে ভুয়া করোনা রিপোর্ট তৈরির জন্য ডা. সাবরিনার স্বামী আরিফ চৌধুরীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ জানতে পারে, জেকেজি হেলথকেয়ার থেকে ২৭ হাজার রোগীকে করোনার টেস্টের রিপোর্ট দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১১ হাজার ৫৪০ জনের করোনার নমুনা আইইডিসিআরের মাধ্যমে সঠিক পরীক্ষা করানো হয়েছিল। বাকি ১৫ হাজার ৪৬০ জনের রিপোর্ট প্রতিষ্ঠানটির ল্যাপটপে তৈরি করা হয়।

উল্লেখ্য, ডা. সাবরিনা জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের চিকিৎসক। তিনি গণমাধ্যমে নিজেকে জেকেজির ‘চেয়ারম্যান নয়’ বরং প্রতিষ্ঠানটির ‘কোভিড-১৯ বিষয়ক পরামর্শক’ দাবি করেছেন। তবে পুলিশের তদন্ত বলছে, সাবরিনাই জেকেজির চেয়ারম্যান।

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More