রাত ৯:২৫ বৃহস্পতিবার ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ২৬শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

হোম দেশ বিদেশে বসেও কোরবানির গরু কিনতে পারবেন প্রবাসীরা

বিদেশে বসেও কোরবানির গরু কিনতে পারবেন প্রবাসীরা

লিখেছেন মামুন শেখ
বিদেশে বসেও কোরবানির গরু কিনতে পারবেন প্রবাসীরা-durantobd.com
Spread the love

প্রতিবছর ঈদুল আজহা যে উৎসবের আমেজ নিয়ে আসে এবার তাতে অনেকখানি ভাটা পড়বে। করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মানতে গিয়ে ঈদ উদযাপনেও ছাড় দিতে হবে। প্রতিবছর ঈদুল আজহায় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা সাধ্যমতো পশু কোরবানি দেন এবং এর মাংসের একটি অংশ গরিবদের মধ্যে বিলিয়ে দেন।

এদিকে বাংলাদেশে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। প্রতিদিনই উল্লেখযোগ্যসংখ্যক মানুষ মারা যাচ্ছে। করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষার জন্য মানুষের ভিড় এড়িয়ে চলাটা অত্যন্ত জরুরি। কিন্তু পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা শুধু কঠিনই নয়, একরকম অসম্ভব বলা যায়। তাই এ নিয়ে জনমনে আছে শঙ্কা।

তবে এই পরিস্থিতিতে আশা জাগাচ্ছে অনলাইন পশুর হাট। বেশ কয়েকটি অনলাইন প্লাটফর্ম এবার কোরবানির ঈদে পশু বিক্রি করবে। যেখান থেকে আপনি ঘরে বসেই পছন্দমতো গরু-ছাগল বা পশু কিনতে পারবেন। শুধু দেশেই নয়, বিদেশ থেকেও প্রবাসীরা পশু কিনতে এবং দাম পরিশোধ করতে পারবেন কোরবানির জন্য।

অনলাইনে কোরবানির পশু ক্রয় করা যাবে Bikroy.com, Bengal meat, Daraz, American Dairy, Deshi Meat-এর মতো প্লাটফর্মগুলো থেকে।

সম্প্রতি মাংস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল মিট qurbani.bengalmeat.com নামে তাদের কোরবানির হাট শুরু করেছে।

এছাড়া কোরবানির গবাদিপশু বিপণনের জন্য ‘ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট’ নামে অনলাইন প্লাটফর্ম চালু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনও।

বেঙ্গল মিটের সেলস, মার্কেটিং এন্ড ডিসট্রিবিশন প্রধান শরফুদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে জানান, বেঙ্গল মিটের ওয়েবসাইটে গিয়ে মানুষের শুধু পশুটি পছন্দ করতে হবে। এরপর হালাল কোরবানি, মাংস প্রক্রিয়াকরণ থেকে শুরু করে সবই তারা করবে পেশাদার টিম দিয়ে। এরপর প্যাকেটজাত মাংস পৌঁছে যাবে ক্রেতার বাড়িতে।

তিনি বলেন, এর ফলে খোলা যায়গায় গরু জবাইয় এবং মাংস প্রক্রিয়াকরণের যে স্বাস্থ্যঝুঁকি সেটা অনেকটাই কমে যাবে।

সাধারণ অনলাইন শপিং সাইটগুলোর মতোই এসব সাইটেও প্রচুর সংখ্যক পশুর মধ্য থেকে পছন্দ মতো পশু বাছাই এবং মূল্য পরিশোধের মাধ্যমে কেনার সুযোগ থাকবে। এখানে প্রতিটি পশুর সঙ্গে ভিডিও এবং লিখিত বর্ণনা থাকবে যেমন- পশুর বয়স, ওজন, দাঁতের সংখ্যা, রং, লিঙ্গ ইত্যাদি।

চীনা ই-কমার্স জায়ান্ট আলিবাবা’র সহায়ক প্রতিষ্ঠান দারাজ বাংলাদেশ গত বছর ১৮০টি পশু অনলাইন হাটে তুলে ৭০টি বিক্রি করতে সক্ষম হয়।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা সায়ন্তনী ত্বিষা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে অনলাইনে প্রচুর পশু বিক্রি হবে। আমরা বাছাইকৃত উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে শতভাগ অর্গানিক পশু ক্রেতাদের সামনে হাজির করবো।

ই-কমার্স সাইট বিক্রয় ডটকমের কো-ম্যানেজিং ডিরেক্টর ঈশিতা শারমিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, অমরা গত ছয় বছর ধরে অনলাইনে গরুর হাট আয়োজন করে আসছি। এবারও অনলাইনে গরুর হাট বসবে। আমরা আমাদের সদস্যদের কিছু ডিসকাউন্ট অফার দিয়ে থাকি, অ্যাগ্রো ফার্মগুলোকে আমরা এবার আরও কম রেটে মেম্বারশিপ দিচ্ছি। কারণ করোনার কারণে অনলাইনে বিক্রি বেশি হবে বলে প্রত্যাশা সবার। তবে তাই বলে যাকে তাকে মেম্বারশিপ দেওয়া হচ্ছে না। আমাদের টিম ফার্মগুলো ভিজিট করার পরই কেবল কোনো ফার্মকে হাটে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। ফলে মানের প্রশ্নে কোনো আপস নেই।

তিনি জানান, বরাবরের মতোই বিক্রয় ডটকমে থাকা গরুগুলো গ্রাহক চাইলে খামার বা ফার্মগুলোতে গিয়ে দেখেও আসতে পারবেন।

ই-কমার্স সাইটগুলোর বাইরে এবার অনেক খামারিও ব্যক্তিগত উদ্যোগে ফেসবুক ব্যবহার করে নিজেদের গরু-ছাগলের বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন। গ্রামের খামারিরাও বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে যোগাযোগ করছেন।

You may also like

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More